ই-কমার্স হোস্টিং নিয়ে ১০টি গুরুত্বপূর্ণ টিপস

ই-কমার্স হোস্টিং নিয়ে ১০টি গুরুত্বপূর্ণ টিপস

আপনার অনলাইন ব্যবসার মূল হাতিয়ারই হল ওয়েবসাইট। আর এই ওয়েবসাইট এর গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হোস্টিং। আর তাই আপনার ই-কমার্স ব্যবসার জন্য আপনাকে হোস্টিং এর উপর বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।

সাধারনত ই-কমার্স হোস্টিং বলে কিছু নেই। আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি যেকোন হোস্টিং নিতে পারেন। কিন্তু যদি আপনার ই-কমার্স বা অনলাইনে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে পন্য বা সেবা বিক্রি করতে চান তাহলে আপনাকে ই-কমার্সের জন্য স্পেশালাইড হোস্টিং নিতে হবে। আর যদি তা করতে চান ওয়ার্ডপ্রেেসের মাধ্যমে তাহলে তো আর কথাই নেই।

বর্তমানে বেশ কিছু কোম্পানি, ওয়ার্ডপ্রেস ও ই-কমার্স ওয়েবসাইটের জন্য স্পেশাল কিছু হোস্টিং সার্ভিস দিয়ে থাকে। একইসাথে আরো অনেক ফিচার থাকে এসব স্পেশাল ওয়ার্ডপ্রেস ও ই-কমার্স হোস্টিং এ। আজ এ বিষয়ে ১০টি টিপস দিব আপনাদের যাতে আপনারা এ বিষয়ে হোস্টিং নিয়ে কোন সমস্যায় না পড়েন।

টিপস ১
জনপ্রিয় ও বিশ্বাসযোগ্য কোম্পানির হোস্টিং কেনার চেষ্টা করবেন। এছাড়া পেমেন্ট মেথড সম্পর্কে জেনে নেয়া ভালো। যে পেমেন্ট মেথডে আপনি সহজে বিল পে করতে পারবেন সেইটাই আপনার নেয়া উচিৎ। অন্যথায় বিল পে করার মুহুর্তে আপনাকে ঝামেলা পোহাতে হবে।

টিপস ২
আপনার হোস্টিং সি-প্যানেল ম্যানেজড হলে ভালো হয়। এটি আপনার হোস্টিং ম্যানেজমেন্ট অনেক সহজ করবে।

টিপস ৩
হোটিং স্পিড যাতে ভালো হয়। ই-কমার্স ওয়েবসাইটের জন্য ভালো স্পিড ছাড়া ব্যবসা করা অসম্ভব। এর জন্য আপনার হোস্টিং স্পিড এবং ব্যান্ডউইথ সম্পর্কে জেনে নিতে হবে।

টিপস ৪
যেই হোস্টিং কোম্পানি থেকে সার্ভিস নেন না কেন তাদের সিকিউরিটি সিস্টেম যাতে সব থেকে ভালো হয়। ভালো সিকিউরিটি সিস্টেম ছাড়া আপনার ব্যবসা যে কোন সময় হুমকির মুখে পড়তে পারে।

টিপস ৫
ডাটা ব্যাকাপ প্রসেস সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। ডাটা ব্যাকাপ ছাড়া আপনার সাইট যদি কখনো টেকনিক্যাল ইস্যু ফেইস করে অথবা হ্যাকিং এর শিকার হয় তখন আপনার মূল্যবান ডাটা আর ফিরে পাবেন না। চেষ্টা করবেন যেন অয়েবসাইটের ডাটা শিডিউল ব্যাকাপ থাকে। এতে করে হ্যাকিং বা টেকনিক্যাল ইস্যু ফেইস করার পর যে কোন সময় অয়েবসাইট রিস্টোর করে নিতে পারবেন।

টিপস ৬
হোস্টিং স্টোরেজ সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। আপনার সাইট হোস্ট করার জন্য কত জিবি স্টোরেজ প্রয়োজন তা জেনে পর্যাপ্ত স্টোরেজ নিন। প্রয়োজনে কিছুটা বেশি নিয়ে রাখতে পারেন। তাহলে হঠাৎ করেই স্টোরেজ শেষ হওয়ার রিস্ক থাকে না।

টিপস ৭
আপনার হোস্টিং একাউন্টে যাতে পর্যাপ্ত ইমেইল একাউন্ট ক্রিয়েট করা যায়। অয়েবমেইলে আপনার কাস্টোমার সাপোর্ট, এমপ্লয়িদের ইমেইল এবং আভ্যন্তরীন যোগাযোগের জন্য কতগুলো ইমেইল একান্টের প্রয়োজন হতে পারে সেইটা জেনে দেখে নিন আপনার হোস্টিং প্যাকেজে ততগুলো একাউন্ট করা যায় কিনা।

টিপস ৮
ভালো কাস্টোমার সার্ভিস আপনার ই-কমার্স হোস্টিং এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। হোস্টিং বিষয়ক যে কোন সমস্যায় দ্রুত সমাধান করার জন্য হোস্টিং কোম্পানির কাস্টোমার সাপোর্ট যাতে সহজে পান সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

টিপস ৯
চেষ্টা করবেন যাতে আপনার হোস্টিং এর পর্যাপ্ত ব্যান্ডউইথ থাকে। তাহলে আপনার ওয়েবসাইট ব্যান্ডউথ শেষ হয়ে ডাউন হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

টিপস ১০
পর্যাপ্ত সাবডোমেইন এবং এফটিপি একাউন্ট আপনার হোস্টিং প্যাকেজে আছে কিনা জেনে নিতে হবে। এতে করে আপনার কাঙ্ক্ষিত পরিমাণ সাবডোমেইন এবং এফটিপি একাউন্ট করে নিতে পারবেন।

আশা করি এই ১০টি টিপস আপনার অনলাইন বা ই-কমার্স ব্যবসার ওয়েবসাইট পরিচালনার জন্য সহায়ক হবে।

Leave a Comment